Breaking News

Best Motivational Story in 2020|Hidden Key Of Success

[su_heading size="17"]Best Motivational Story in 2020|Hidden Key Of Success[/su_heading]


Hidden Key Of Success (নিজেকে পরিপূর্ণ ও শ্রেষ্ঠত্বে আনয়নের চাবিটি)

পানিকে বিশুদ্ধ করার জন্য ফিল্টার রয়েছে। কিন্তু মানুষকে বিশুদ্ধ করার কী আছে?

কাপড়ের ময়লা দূর করতে আছে সাবান কিংবা ডিটারজেন্ট পাউডার। কিয মানুষের ব্যর্থতা ময়লা দূর করতে কী আছে? কিছুই নেই। আপনি মানুষ মানুষকে কোন যন্ত্র বিশুদ্ধ করতে পারে না। মানুষ সৃষ্টির সেরা জীব। সেই নিজেই নিজেকে বিশুদ্ধ করতে পারে। এখন শুধু প্রয়োজন কিছু ক্ষমতার । সম্মানীত পাঠক, দেখুন তাে আপনার মাঝে নিচের গুণগুলাে আছে কি না-

# নিজের ভুল বের করার ক্ষমতা।

# ঝুঁকি নেওয়ার ক্ষমতা।

# সমলােচনা সহ্য করার ক্ষমতা

# ব্যর্থতা মেনে নেওয়ার ক্ষমতা। 

# দোষ স্বীকার করার ক্ষমতা।

# অন্যকে প্রশংসা করার ক্ষমতা।

# নিজের সেরাটুকু খুঁজে পাওয়ার ক্ষমতা।

নিজের ভুল বের করার ক্ষমতা (Best Motivational Story)

পৃথিবীর শ্রেষ্ঠ আবিষ্কারক কে? নিউটন, আইনস্টাইন নাকি টমাস আলভা এডিসন?

শ্রেষ্ঠ আবিষ্কারকের শ্রেষ্ঠ আবিষ্কার কী- গতির সূত্র, বৈদ্যুতিক বাতি নাকি বিমান? আমি মনে করি পৃথিবীর শ্রেষ্ঠ আবিষ্কারক নিউটন নয়, আইনস্টাইনও নয়, এমনকি টমাস আলভা এডিসন নয়। পৃথিবীর শ্রেষ্ঠ আবিষ্কারক তিনিই, যিনি নিজের ভুলটি নিজেই আবিষ্কার করতে পেরেছেন। পৃথিবীর সেরা ব্যক্তি সে নয়, যে অন্যেদের ভুল বের করতে পারে। পৃথিবীর সেরা ব্যক্তি সে, যে নিজের ভুলটি সবার আগে বের করতে পারে।

আপনি ততক্ষণ পর্যন্ত সফল হতে পারবেন না, যতক্ষণ পর্যন্ত আপনি নিজের ভুলগুলাে আবিষ্কার করতে পারছেন না। ভুল করা লজ্জার কিছু নয়। ভুল তাে সে-ই করবে, যে কাজে হাত দিবে। যার কাজের প্রতি আগ্রহই নাই, তার জীবনে না আছে ভুল, না আছে শুদ্ধ। সহজ বাংলায় সে একজন অলস। মানুষ মাত্রই ভুল করে। আপনি ভুল করেছেন? তার মানে আপনি একজন মানুষ। আর আপনি যদি আপনার ভুল স্বীকার করতে পারেন, তবে আপনি হবেন মহান মানুষ। ভুল স্বীকার করতে পারাটা মানুষের অনেক বড় গুণ।

কেন আপনি ভুল স্বীকার করবেন? কেন আপনি নিজের ভুল নিজে আবিষ্কার করবেন? আপনি যদি আপনার নিজের ভুলটি নিজেই আবিষ্কার করতে পারেন এবং ভুল স্বীকার করতে পারেন, তবে নিঃসন্দেহে আপনি বিনয়ী, নম্র, ভদ্র, ও একজন সুশীল, সুন্দর মনের মানুষ হিসেবে সবার মনে ঠাই পাবেন। অহংকারী ব্যক্তির প্রাপ্তি বলতে শুধু নিজের মিথ্যা আত্মতৃপ্তিটুকুই থাকে; কিন্তু একজন বিনয়ী মানুষ সবার মনেই স্থান পায়। আপনি যদি নিজের ভুলটুকু বের করতে না পারেন, তবে তা আর সংশােধনের সুযােগ পাবেন না। আর যদি ভুল সংশােধন করতে না পারেন তবে সারাজীবন আপনাকে ভুলগুলাে নিয়েই বসবাস করতে হবে। এখন সিদ্ধান্ত আপনার; আপনি কি সারাজীবন ভুল নিয়েই বসবাস করবেন, নাকি ভুল সংশােধন করে একজন পরিপূর্ণ মানুষ হিসেবে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করবেন। মনে রাখবে- Your last mistake is your best teacher.

সমালােচনা সহ্য করার ক্ষমতা(Best Motivational Story)

সমালােচক কখনাে কারাে ক্ষতি করতে পারে না। আমরা সাধারণত সমালােচকদের সহ্য করতে পারি না। কারণ তারা আপনার ভুলগুলােই সবাইকে বলে বেড়ায়। আমরা সবাই পরিপক্ক ও ভালাে মানুষ হয়ে বাঁচতে চাই। আমরা সবাই মনে করি আমাদের মাঝে কোন ভুলত্রুটি বা অন্যায় বা নেগেটিভ কিছু থাকবে না। আপনার মাঝে যেসব ভুলত্রুটি আছে তা হয়তাে আপনার চোখে পড়ে না। কিন্তু আপনার মাঝেও ভুলত্রুটি রয়েছে। আপনার কাছের মানুষগুলােও আপনার ভুলত্রুটিগুলাে আপনাকে দেখিয়ে দেয় না। যদি আপনি তাতে কিছু মনে করেন এই ভেবে। তাহলে আপনার দোষগুলাে আপনি কিভাবে সংশােধন করবেন? এক্ষেত্রে সমালােচকই আপনার একমাত্র ব্যক্তি যে আপনার দোষ ত্রুটি ও ভুলের হিসেব রাখে। যদিও সে অসৎ উদ্দেশ্যে কাজটি করে; কিন্তু সমলােচনার কারণেই আপনি নিজেকে ভুল থেকে, খারাপ কিছু থেকে দূরে সরিয়ে রাখেন। আপনি একটু খেয়াল করে দেখবেন, সমালােচনা তারই হয়, যিনি অনেক বেশি আলােচিত হওয়ার যােগ্য। আপনার পাশের গ্রামের লােকটি সারাদিন অশ্লীল ভাষায় গালমন্দ করলেও তাকে নিয়ে দশ জন মানুষও সমালােচনা করে না। অথচ আমেরিকার প্রেসিডেন্ট ডােনাল্ড ট্রাম্প নারী বিরােধী দু'টা কথা বললেই তাকে নিয়ে টাক-শাে হয়, পত্রিকায় লেখালেখি হয়। এর কারণ কী? এর কারণ আমেরিকার প্রেসিডেন্ট ডােনাল্ড ট্রাম্প আপনার পাশের গ্রামের লােকটির চেয়েও হাজার গুণ বেশি জনপ্রিয় ও বিখ্যাত।

আপনার সমালােচকদের সংখ্যা তত বেশি হবে, যত বেশি আপনি জনপ্রিয় আর বিখ্যাত হবেন। মনে রাখবেন- দুষ্ট ছেলেরা সেই গাছেই বেশি টিল ছুঁড়ে, যে গাছের ফল খুবই মিষ্টি হয়।

ঝুঁকি নেওয়ার ক্ষমতা(Best Motivational Story)

ইংরেজিতে একটা প্রবাদ আছে- No Risk, No Gain. ঝুঁকি সবাই নিতে পারে না। ঝুঁকি নেওয়ার জন্য সাহস ও কাজের প্রতি আন্তরিকতার দরকার হয়। যার সাহস ও কাজের প্রতি আন্তরিকতা থাকে, তিনি তাে এমনিতেই সফল হাোন। আপনি ঝুঁকি নিয়েছেন? তার মানে ঐ কাজের প্রতি আপনি অনেক আন্তরিক। এক মনীষি এ প্রসঙ্গে একটি চমৎকার কথা বলেছেন Take risks in your life If you win, you can lead If you lose, you can guide.

জীবনে যারা বড় বড় পর্যায়ে সফলতা এনেছেন, তাদের অনেকেই বড় বড় ঝুঁকি নিয়েছেন। আপনি কত বড় গাছ কাটবেন সেটা নির্ভর করবে আপনি কত ধারালাে কুড়াল এনেছেন তার উপর। ঝুঁকি নেওয়ার সিদ্ধান্তটি আপনার সঠিক কি না তা আপনার কাজের উপর নির্ভর করছে। তবে মাথায় রাখবেন একটি সঠিক সিদ্ধান্ত আপনার আত্মবিশ্বাসকে দ্বিগুণ করবে। আর একটি ভুল সিদ্ধান্ত আপনার অভিজ্ঞতাকে দ্বিগুণ করে তুলবে। অতএব সিদ্ধান্ত যা-ই হােক তা আপনার জন্য ভালাে কিছু বয়ে আনবে।

ব্যর্থতা মেনে নেওয়ার ক্ষমতা(Best Motivational Story)

একজন মানুষের সবচেয়ে বড় ব্যর্থতা হলাে ব্যর্থতাকে মেনে নিতে না পারা। আপনি যদি ব্যর্থতার পর সিস্টেমকে দোষ দেন, সমাজকে দোষ দেন, মানুষকে দোষ দেন, তবে নিঃসন্দেহে আপনি আরাে একটি ব্যর্থতার জন্ম নিবেন। পুরনাে ব্যর্থতা কি নতুন ব্যর্থতার জন্ম দিবে; নাকি নতুন সফলতার জন্ম দিবে তার পুরােটাই আপনার উপর নির্ভর করে। আপনার প্রতিটি ব্যর্থতায় হতে পারে। আপনার এক একটি ট্রেনিং। আর এজন্য সম্ভবত টমাস আলভা এডিসন দশ হাজার বার ব্যর্থতার পর যখন বৈদ্যুতিক বাতি আবিষ্কার করলেন, তখন তিনি বললেন- আমি দশ হাজার বার ব্যর্থ হয়নি; বরং দশ হাজারটা পথ আবিষ্কার। করেছি যে পথে বৈদ্যুতিক বাতি আবিষ্কার করা যায় না।

প্রশংসা করার ক্ষমতা(Best Motivational Story)

পৃথিবীর সবচেয়ে সহজ কাজ অন্যের সমলােচনা করা। আর সবচেয়ে কঠিন কাজ অন্যের প্রশংসা করা।

নিজের সেরাটুকু খুঁজে পাওয়ার ক্ষমতা(Best Motivational Story)

পৃথিবীর সেরা সার্চ ইঞ্জিন কি- গুগল, বিং নাকি পিপীলিকা? আমি মনে করি পৃথিবীর সেরা সার্চ ইঞ্জিন গুগুল নয়, বিংও নয় এমনকি বাংলা সার্চ ইঞ্জিন পিপীলিকাও নয়। পৃথিবীর সেরা সার্চ ইঞ্জিন হল সেই ব্যক্তি, যিনি নিজের সেরাটুকু নিজেই খুঁজে পান। গুগলে আপনি সার্চ করলে পৃথিবীর সব তথ্য পাবেন; শুধু পাবেন না আপনার সেরা ক্ষমতার খবর, পাবেন না আপনার সক্ষমতার খবর । যে ব্যক্তি নিজের শ্রেষ্ঠত্ব বুঝতে পারে, যে ব্যক্তি নিজের সক্ষমতাটুকু বুঝতে পারে সে-ই তাে পৃথিবী জয় করতে পারে। যারা নিজেদের সক্ষমতার খোঁজ পেয়েছিল তারাই তাে এভারেস্ট জয় করেছেন, অল্প শিক্ষা নিয়েও বড় বড় বিজ্ঞানী হয়েছেন। সার্কাস কিংবা চিড়িয়াখানায় আগুন লাগলে সেখানকার হাতিটি কেন আগুনে পুড়ে মারা যায়? হাতির তাে অসীম শক্তি। তাহলে সে কেন সামান্য একটা দড়ি কিংবা শিকল ছিড়ে বেরিয়ে আসতে পারে না? এর কারণ হলাে জন্মের পর থেকেই তাকে একটা ছােট শিকল বা দড়ি দিয়ে সেখানে বেঁধে রাখা হয়। ফলে সার্কাসের মধ্যে সে যখন বড় হতে থাকে তখন সে ভাবে, ঐ শিকল ছিড়ার ক্ষমতা ওর নাই। অথচ বনের হাতি অনেক শক্তিশালী শিকল ছিড়ার ক্ষমতা রাখে। যেহেতু ছােট থেকেই সার্কাসের হাতিটি বন্দী অবস্থায় বড় হয়। সে জানেই না বা সে বুঝতেই পারে না তারও যে শক্তিশালী একটা দেহ আছে। যদি সে নিজের সক্ষমতাটুকু বুঝতে পারত তবে সে সহজে শিকল ছিড়ে বেরিয়ে আসতে পারতাে।

No comments